হোম »  ক্যান্সার »  গরম চা খান? ক্যানসারকে ডেকে আনছেন!

গরম চা খান? ক্যানসারকে ডেকে আনছেন!

প্রত্যেকদিন ৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার থেকে বেশি মাত্রায় গরম সাতশো মিলিলিটার চা বা অন্য পানীয় যদি কেউ পান করেন, তা হলে তার খাদ্যনালীর ক্যান্সারের আশঙ্কা ৯০% হয়ে যায়

গরম চা খান? ক্যানসারকে ডেকে আনছেন!

যে কোনও গরম পানীয়ের ক্ষেত্রেই বিষয়টি প্রযোজ্য

হাইলাইট

  1. অতিরিক্ত গরম চা খাওয়া ইসোফেগাস ক্যান্সারকে ডেকে আনতে পারে।
  2. চা তৈরি করার পরে অন্তত চার মিনিট রেখে, ঠান্ডা করে খান
  3. ভারতে ইসোফেগাস ক্যান্সার ষষ্ঠতম সাধারন ক্যানসার

আপনি কি চা খুব গরম অবস্থায় খেতে ভালোবাসেন? তা হলে সাবধান কারণ একটি সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে, অতিরিক্ত গরম চা খাওয়া ইসোফেগাস বা খাদ্যনালীর ক্যান্সারকে ডেকে আনতে পারে। গবেষণায় দেখানো হয়েছে, যারা নিয়মিত ৭৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বা তার বেশি গরম চা পান করেন, তাদের এই ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি থাকে।

দোল উৎসব 2019: ত্বক ও চুল বাঁচিয়ে কীভাবে খেলবেন স্বাস্থ্যকর দোল? ৩ টি সহজ টিপস

তবে চা তৈরি করার পরে অন্তত চার মিনিট রেখে, ঠান্ডা করে তারপরে খেলে এ ধরনের ক্যানসারের সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যায় কারণ গরম চা আমাদের গলা থেকে পেটে পৌঁছয়। অতিরিক্ত গরম অবস্থায় তা যে অংশের মাধ্যমে যায় সেই অঞ্চলের ক্ষতি করে দিতে পারে।


আমেরিকান ক্যান্সার সোসাইটির প্রধান লেখক ফারহাদ ইসলামী বলেন, ‘‘অনেকেই চা-কফির মতো পানীয় খেতে ভালোবাসেন। কিন্তু সাম্প্রতিক একটি রিপোর্টে প্রকাশিত চা-কফি যাই হোক, সেগুলি অতিরিক্ত গরম অবস্থায় খাওয়ার অভ্যাস থাকলে খাদ্যনালীর ক্যান্সারের আশঙ্কা বেড়ে যেতে পারে। তাই অন্তত খানিকটা ঠান্ডা করে তবেই চা বা অন্য পানীয় খাবেন।

মাত্র ১০ মিনিট ধ্যান করুন রোজ, এই ১০ টি অবিশ্বাস্য উপকারিতা টের পাবেনই

ইন্টারন্যাশনাল জার্নাল অফ ক্যান্সারে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে। ৫০০৪৫ জন ব্যক্তির উপরে পরীক্ষাটি চালানো হয়েছে, যাদের বয়স ৪০ থেকে ৭৫ এর মধ্যে।

প্রত্যেকদিন ৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার থেকে বেশি মাত্রায় গরম সাতশো মিলিলিটার চা বা অন্য পানীয় যদি কেউ পান করেন, তা হলে তার ইসোফেগাল ক্যান্সারের আশঙ্কা ৯০% হয়ে যায় বলে গবেষকেরা জানিয়েছেন। একই তাপমাত্রায় কফি বা হট চকলেটও কিন্তু সমান আশঙ্কাজনক হিসেবে বিবেচিত হয়।

ভারতে খাদ্যনালীর ক্যান্সার ষষ্ঠতম সাধারন ক্যানসার এবং বিশ্বে অষ্টম সাধারণ ক্যানসার হিসেবে বিবেচিত হয়। পুরুষ নারী সকলের ক্ষেত্রে এটি সমানভাবে প্রযোজ্য।

২০১৬ সালে ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন ৬৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি তাপমাত্রায় গরম পানীয়কে ক্যান্সারের আশঙ্কার সঙ্গে সংযুক্ত করে সাবধান বার্তা দিয়েছিল।

গরমে পানীয় মুখ থেকে গলা হয়ে নামার সময়ে টিউমারের জন্ম দিতে পারে বলে বিজ্ঞানীদের বিশ্বাস।

মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------