হোম »  লিভিং হেলথি »  ই-সিগারেটের শরণাপন্ন হয়েছেন? হাঁপানি সহ শ্বাসযন্ত্রের সমস্যায় ভুগতে পারেন

ই-সিগারেটের শরণাপন্ন হয়েছেন? হাঁপানি সহ শ্বাসযন্ত্রের সমস্যায় ভুগতে পারেন

গবেষণায় দেখা গেছে যে, ফলের স্বাদ যুক্ত পণ্যে এন্ডোটক্সিনের পরিমাণ ছিল বেশি।

ই-সিগারেটের শরণাপন্ন হয়েছেন? হাঁপানি সহ শ্বাসযন্ত্রের সমস্যায় ভুগতে পারেন

Asthma: ই সিগারেটের (e-cigarettes) ফলে হাঁপানি হতে পারে

সিগারেটের ক্ষতিকারক প্রভাব থেকে বাঁচতে অনেকেই ইলেকট্রনিক সিগারেট (Electronic cigarettes) বা ই-সিগারেটের (e-cigarettes) শরণাপন্ন হন। কিন্তু একটি নতুন গবেষণায় জানা গিয়েছে এতে হাঁপানি, ফুসফুসের সমস্যা এবং প্রদাহ সহ অসংখ্য শ্বাস প্রশ্বাস সংক্রান্ত সমস্যা দেখা যেতে পারে। এই ধরণের ই-সিগারেটে মাইক্রোবায়াল বিষক্রিয়া (microbial toxins) হতে পারে বলে সতর্ক করেছেন গবেষকরা।

গবেষণার জন্য, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা ৭৫ জনপ্রিয় ই-সিগারেট পণ্যগুলি পরীক্ষা নিরীক্ষা করেছেন। কার্ট্রিজেস (একক ব্যবহার) এবং ই-তরল পদার্থ (রিফিলযোগ্য উপাদান) যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ঢালাও বিক্রি হয় সেসব নিয়ে তাঁরা গবেষণা করেন।

এনভায়রনমেন্টাল হেলথ পার্সপেকটিভস পত্রিকায় প্রকাশিত ফলাফল থেকে জানা গেছে যে এই পণ্যগুলির ২৭ শতাংশেই এন্ডোটক্সিনের (endotoxin) চিহ্ন পাওয়া গিয়েছে। এই এন্ডোটক্সিন হল গ্রাম-নেগেটিভ ব্যাকটেরিয়াতে পাওয়া একটি মাইক্রোবিয়াল এজেন্ট। এবং ৮১ শতাংশ গ্লুকান (glucan) পাওয়া গেছে। বেশিরভাগ ছত্রাকের কোষের প্রাচীরগুলিতে এই গ্লুকান পাওয়া যায়। 


World Malaria Day: তিরিশ বছর ধরে তৈরি হল পৃথিবীর প্রথম ম্যালেরিয়া ভ্যাকসিন

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডেভিড ক্রিশ্চিয়ানি বলেন, “এয়ারবোর্ন গ্রাম-নেগেটিভ ব্যাকটেরিয়াল এন্ডোটক্সিন এবং ছত্রাকের পাওয়া যাওয়া গ্লুকানগুলি পেশাগত ও পরিবেশগত নানা পরিস্থিতিতে শ্বাসযন্ত্রের উপর তীব্র এবং দীর্ঘস্থায়ী প্রভাব সৃষ্টি করে।"

ক্রিশ্চিয়ানি আরও বলেন, “ই-সিগারেট পণ্যগুলিতে এই বিষক্রিয়াগুলি সনাক্ত করার ফলে, ব্যবহারকারীদের শ্বাসপ্রশ্বাসে প্রতিকূল প্রভাব সম্পর্কে উদ্বেগ আরও বাড়িয়ে দেয়।”

গবেষণায় দেখা গেছে যে, ৭৫ টির মধ্যে ১৭ টি পণ্যেই (২৩ শতাংশ) এন্ডোটক্সিনের সংশ্লেষণ ধরা পড়েছে এবং এই ৭৫ টির মধ্যে ৬১ টি পণ্যে (৮১ শতাংশ) গ্লুকান সংশ্লেষণ দেখা গিয়েছে। 

কেন গর্ভবতী হতে চাইছেন না মহিলারা! কি বলছেন মনোবিজ্ঞানীরা

গবেষণায় দেখা গেছে যে, ফলের স্বাদ যুক্ত পণ্যে এন্ডোটক্সিনের পরিমাণ ছিল বেশি। বোঝাই যাচ্ছে যে, এই ধরণের স্বাদ উৎপাদনে ব্যবহৃত কাঁচামাল মাইক্রোবিয়াল দূষণের উৎস হতে পারে। গবেষকরা উল্লেখ করেছেন যে পণ্যগুলির দূষণ উপাদানগুলির উত্পাদনের সময় বা একটা গোটা ই-সিগারেট তৈরি শেষ হয়ে যাওয়ার সময়েও ঘটতে পারে।

“ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থসমেত শ্বাস নেওয়া ছাড়াও, ই-সিগারেট ব্যবহারকারীদের এন্ডোটক্সিন এবং গ্লুকানের মতো জৈব দূষণেও আক্তান্ত হতে পারেন,” বলেন গবেষণার প্রধান লেখক এমআই-সান লি।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------