হোম »  আইস »  শুষ্ক চোখের উপসর্গ; চোখ শুকিয়ে যাওয়া আটকাতে পারে এই ৬ টি ঘরোয়া পদ্ধতি

শুষ্ক চোখের উপসর্গ; চোখ শুকিয়ে যাওয়া আটকাতে পারে এই ৬ টি ঘরোয়া পদ্ধতি

শুষ্ক চোখের সমস্যা নানা কারণে হতে পারে। যেমন চোখের ডিজিটাল স্ট্রেন, চোখের অ্যালার্জি, চোখের আগেকার কোনও অস্ত্রোপচার, অনেকক্ষণ চোখের পাতা না ফেলা, কিছু নির্দিষ্ট ওষুধ বা বার্ধক্য

শুষ্ক চোখের উপসর্গ; চোখ শুকিয়ে যাওয়া আটকাতে পারে এই ৬ টি ঘরোয়া পদ্ধতি

শুকনো চোখ একটি অস্বস্তিকর এবং বেদনাদায়ক অবস্থা

হাইলাইট

  1. শুষ্ক চোখের সমস্যা খুবই অস্বস্তিকর
  2. মাঝে মাঝেই কর্মবিরতি নিলে তা চোখের আর্দ্রতা ফেরায়
  3. কম ঘুমের ফলেও শুকিয়ে যায় চোখ

সব কটি ইন্দ্রিয়ের মধ্যে যদি সত্যিই সেভাবে গুরুত্ব বিচার করতেই হয়, নির্দ্বিধায় এগিয়ে থাকবে চোখ। চোখ শরীরের সবচেয়ে সংবেদনশীল এক অঙ্গ ফলত চোখের যত্ন নেওয়া আমাদের পক্ষে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শুষ্ক চোখের সমস্যা তখনই দেখা যায় যখন চোখের পৃষ্ঠের উপর পর্যাপ্ত তৈলাক্তকরণ, পুষ্টি এবং আর্দ্রতার অভাব ঘটে। চোখ যখন তৈলাক্ত থাকার জন্য যথেষ্ট অশ্রু তৈরি করতে অক্ষম হয় বা অশ্রুর মান খুব খারাপ হয় এবং খুব দ্রুত বাষ্পীভূত হয়, তবে তা চোখের শুষ্কতা, জ্বালা, প্রদাহ এবং বিবর্ণ দৃষ্টির সৃষ্টি করতে পারে। শুকনো চোখ একটি অস্বস্তিকর এবং বেদনাদায়ক অবস্থা।

qsnvidmo

চোখের যত্ন নেওয়া আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ


ফটো ক্রেডিট: iStock

শুষ্ক চোখের সমস্যা নানা কারণে হতে পারে। যেমন চোখের ডিজিটাল স্ট্রেন, চোখের অ্যালার্জি, চোখের আগেকার কোনও অস্ত্রোপচার, অনেকক্ষণ চোখের পাতা না ফেলা, কিছু নির্দিষ্ট ওষুধ বা বার্ধক্য। শুষ্ক চোখের কিছু সাধারণ উপসর্গ হল, লাল চোখ, চোখের চুলকানি, চোখ ফোলা, চোখ জ্বালা করা, হালকা সংবেদনশীলতা, চোখ লালচে হওয়া বা চোখের ঘা।

শুষ্ক চোখের উপসর্গ উপশমের ৬ টি ঘরোয়া প্রতিকার:

1. ভিটামিন ডি:

ভিটামিন ডি-এর অভাব হলে চোখ শুষ্ক হয়ে যায়। ভিটামিন ডি সম্পন্ন একটি ডায়েট আপনার শুষ্ক চোখের সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে সহায়তা করতে পারে। ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ কিছু খাবার হল ডিমের কুসুম, আখরোট, পনীর, ফ্যাটি মাছ যেমন সালমন বা টুনা, বাদাম এবং বীজ।

2s3jc7qo

ভিটামিন ডি সম্পন্ন ডায়েট শুষ্ক চোখের সমস্যা থেকে দূরে রাখতে পারে।

ফটো ক্রেডিট: iStock

2. ঘন ঘন চোখ বন্ধ করুন:

যদি একটানা কাজ করতে করতে থাকেন তাহলে মাঝে মাঝে বিরতি নিয়ে ঘন ঘন চোখ খোলা বন্ধ করুন। বিশেষ করে কম্পিউটার, মোবাইল ফোন বা টেলিভিশন দেখার সময় বিরতি গ্রহণ করার চেষ্টা করুন। মাঝে মাঝে বিরতি আপনার চোখের আর্দ্রতা ফিরে পেতে সাহায্য করবে।

3. আপনার পরিবেশ পরিবর্তন করুন:

শুষ্ক চোখের সমস্যায় পরিবেশ একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আপনার সিগারেটের ধোঁয়া এড়ানো উচিত, এবং বাইরে ঝড়ের সময় বাড়ির মধ্যে থাকাই উচিৎ। সিগারেটের ধোঁয়া চোখ জ্বালিয়ে দেয় এবং আপনার চোখ লাল হয়ে যেতে পারে। এছাড়াও, যখন আপনি সাইকেল চালাচ্ছেন বা স্কিইং করছেন তখন আপনার চোখ রক্ষা করুন। নিয়মিত সানগ্লাস পরুন।

4. তরল খান প্রচুর পরিমাণে:

সারা দিন প্রচুর পরিমাণে তরল পদার্থ পান করুন। এই তরল শুষ্ক চোখের উপসর্গ উপশমে সাহায্য করবে। জল ছাড়াও অন্যান্য তরলের মধ্যে লেবু জল, তাজা ফলের রস, নারকেল জল এবং সাধারণ স্মুদি খেতে পারেন।

5. গরম সেঁক:

চোখের সংবহন উন্নতি এবং আরাম দেওয়ার জন্য চোখে হালকা গরম সেঁক করতে পারেন। প্রতিদিন এই দুই থেকে তিন বার এই সেঁক করুন। আপনি এমনকি আপনার চোখের পাতা ও উপরের আচ্ছাদন ধুতে হালকা শ্যাম্পু বা শিশুর শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন। এটি অশ্রু গ্রন্থিগুলি থেকে তেল নিষ্কাশনে সহায়তা করবে।

6. পর্যাপ্ত ঘুম:

ঘুম কম হলেও চোখ শুষ্ক চোখ হতে পারে। পর্যাপ্ত ঘুম কর্নিয়ার আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করে। অতএব, প্রতিদিন ছয় থেকে আট ঘণ্টার ঘুম নিশ্চিত করুন।

h0ru15p8

 

মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

 

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------