হোম »  লিভিং হেলথি »  কাজের চাপে ঘুম হচ্ছে না? সাবধান, ধীরে ধীরে মৃত্যু ঘনাচ্ছে না তো আপনার!

কাজের চাপে ঘুম হচ্ছে না? সাবধান, ধীরে ধীরে মৃত্যু ঘনাচ্ছে না তো আপনার!

যাদের কাজের চাপ নেই এবং ভালো ঘুম হয়, তাঁদের তুলনায়, এই দু’টোই যাঁদের বেশি তাঁদের কার্ডিওভাসকুলার রোগ থেকে মৃত্যুর তিনগুণ বেশি সম্ভাবনা রয়েছে।

কাজের চাপে ঘুম হচ্ছে না? সাবধান, ধীরে ধীরে মৃত্যু ঘনাচ্ছে না তো আপনার!

গবেষণায়, কাজের চাপ বলতে সেই ক্ষেত্রগুলোকেই বলা হয়েছে, যেখানে উচ্চ চাহিদা অথচ নিয়ন্ত্রণ কম

কর্মক্ষেত্রে কাজের চাপ সামলাতে পারছেন না? চাপের কিন্তু এখানেই শেষ নয়, বরং শুরু। যদি উচ্চ রক্তচাপের ধাত থাকে আপনার তাহলে কাজের চাপ আপনার সর্বনাশ ডেকে আনতে পারে। নতুন এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, কাজের চাপ এবং পর্যাপ্ত ঘুম ঘুম না হওয়া হাইপারটেনশন সহ হৃদরোগের আশঙ্কা তিনগুণ বেশি বাড়িয়ে দিতে পারে।

“ঘুম খুব দরকারি বস্তু। ঘুম আমাদের সেরা বিনোদন, নিজেকে হালকা রাখা এবং শক্তির মাত্রা পুনরুদ্ধারের জন্য সময় দিতেই হবে। যদি আপনি কাজের তীব্র চাপে থাকেন তবে একমাত্র ঘুমই আপনার মেজাজ ও শরীর পুনরুদ্ধার করতে সাহায্য করবে” বলেছেন জার্মানির মিউনিখের টেকনিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও গবেষক লেখক কার্ল হেইজ ল্যাডউইগ।

 কাজের চাপ মাথায় উঠতে দিলে কমবে যৌন ইচ্ছা ও প্রজনন ক্ষমতা; বলছে গবেষণা


তিনি বলেন, “দুর্ভাগ্যের বিষয় ঘুম না হওয়া এবং পেশাগত চাপ একে অন্যের ছায়ার মতো, একই সঙ্গে ঘটে, এবং এর সঙ্গে উচ্চ রক্তচাপ থাকলে এর প্রভাবটি আরও বেশি মারাত্মক।” কার্ডিওভাসকুলার রোগ বা ডায়াবেটিস নেই এমন ২৫-৬৫ বছর বয়সের ২,০০০ জন মানুষের উপর গবেষণা চালানো হয় যারা হাইপারটেনশোনের রোগী।

যাদের কাজের চাপ নেই এবং ভালো ঘুম হয়, তাঁদের তুলনায়, এই দু'টোই যাঁদের বেশি তাঁদের কার্ডিওভাসকুলার রোগ থেকে মৃত্যুর তিনগুণ বেশি সম্ভাবনা রয়েছে বলেই দেখা গিয়েছে ইউরোপীয় জার্নাল অফ প্রিভেন্টিভ কার্ডিওলজিতে প্রকাশিত ফলাফলে।

গবেষণায় বলা হয়েছে, যাঁদের কেবল কাজের চাপ বেশি, তাঁদের এই ঝুঁকি ১.৬ গুণ বেশি ছিল এবং যাদের শুধুমাত্র ঘুমের অভাব তাঁদের ঝুঁকি ১.৮ গুণ বেশি। 

রোজ সকালে এক কোয়া রসুন কীভাবে খেলে বাগে আসবে উচ্চ রক্তচাপ, কমাবে ওজনও

গবেষণায়, কাজের চাপ বলতে সেই ক্ষেত্রগুলোকেই বলা হয়েছে, যেখানে উচ্চ চাহিদা এবং নিয়ন্ত্রণ কম- উদাহরণস্বরূপ, যখন কোন নিয়োগকর্তা ফলাফল চান তবে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কোনও ক্ষমতাই দেন না।

ল্যাডউইগ বলেন, “যদি আপনার উচ্চ চাহিদা থাকে এবং উচ্চ নিয়ন্ত্রণও থাকে, মানে সোজা কথায় কাজের সিদ্ধান্ত আপনি নিতে পারেন, এমনটা আপনার স্বাস্থ্যের জন্যও ইতিবাচক হতে পারে।" তিনি আরও বলেন, “কিন্তু চাপের পরিস্থিতিতে ঢুকে পড়েছেন, এবং সেটা সামলানোর মতো কোনও ক্ষমতা বা সিদ্ধান্ত নেওয়ার মতো ক্ষমতা নেই, তাহলে তা আখেরে ক্ষতিকর।”



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদনা করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে।)
মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------