হোম »  স্কিন »  প্রসাধনী কেনার সময় এই উপাদানগুলি ব্যবহার হয়েছে কিনা খতিয়ে দেখেন কি আপনি?

প্রসাধনী কেনার সময় এই উপাদানগুলি ব্যবহার হয়েছে কিনা খতিয়ে দেখেন কি আপনি?

"কৃত্রিম সুগন্ধিতে আসলে আসলে হাজার হাজার বিভিন্ন রাসায়নিক রয়েছে যা সঠিকভাবে পরীক্ষা ছাড়াই মেশানো হয়।" কৃত্রিম সুবাস আছে এমন পণ্য চামড়ার জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে।

প্রসাধনী কেনার সময় এই উপাদানগুলি ব্যবহার হয়েছে কিনা খতিয়ে দেখেন কি আপনি?

প্যারাবেন আছে এমন প্রসাধনী ব্যবহার করবেন না

হাইলাইট

  1. কৃত্রিম সুবাস আছে এমন প্রসাধনী এড়িয়ে চলুন
  2. কৃত্রিম রঙ আছে এমন প্রসাধনীও এড়িয়ে চলুন
  3. ফর্মালডিহাইড ডেরিয়েভেটিভগুলিও কার্সিওজেনিক

ত্বকের যত্ন নিতে এবং নিজেকে সুন্দর করে তুলতে আমরা হামেশাই নানা পণ্য ব্যবহার করে থাকি। কেনার সময় খুব কম মানুষই রয়েছেন যারা এই পণ্য তৈরিতে কী কী উপাদান ব্যবহৃত হয়েছে তা খতিয়ে দেখেন। কি জিনিস ত্বকের মতো সংবেদনশীল স্থানে ব্যবহার করছেন তা স্পষ্টভাবে না জেনেই ব্যবহার করে আখেরে মারাত্মক ক্ষতিই ডেকে আনছেন না তো? ত্বক বিশেষজ্ঞ ডাঃ কিরণ লোহিয়া শেঠি, ইনস্টাগ্রামে তাঁর এক পোস্টে, কিছু পণ্য সম্পর্কে আলোচনা করেছেন যা আপনার ত্বকে ব্যবহার করা থেকে সতর্ক থাকুন। যখনই আপনি ত্বকের যত্নের জন্য কোনও পণ্য কিনবেন, তখন তা তৈরির উপাদানগুলি পরীক্ষা করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ত্বকের উপর অবশ্যই ব্যবহার করা উচিত নয় এমন পণ্যগুলির সম্পর্কে বিশদে জানুন।

শিশুর বারেবারেই ঠাণ্ডা লাগার ধাত? সাবধান! সিনসাইটিয়াল ভাইরাস নয় তো?


কোন প্রসাধনী পণ্য আপনি ব্যবহার করবেন না জেনে নিন:

নিজের ইনস্টাগ্রাম ভিডিওতে, ডাঃ কিরণ বলেন যে কিছু পণ্যগুলিতে বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ মেশানো হয়। এই রাসায়নিকে কৃত্রিম সুবাস আছে, ফলত এই পণ্যগুলির চাহিদাও বেশি হয়। তিনি আরও বলেন, “কৃত্রিম সুগন্ধিতে আসলে আসলে হাজার হাজার বিভিন্ন রাসায়নিক রয়েছে যা সঠিকভাবে পরীক্ষা ছাড়াই মেশানো হয়।" কৃত্রিম সুবাস আছে এমন পণ্য চামড়ার জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে।

কৃত্রিম রঙ ব্যবহার হয়েছে এমন পণ্যগুলিও এড়ানো উচিত কারণ এতে খুব বাজে রাসায়নিক যোগ করা হয়। এসব পণ্য থেকে অ্যালার্জি বা প্রদাহজনিত সমস্যা দেখা যাতে পারে বলেই জানিয়েছেন ডাঃ কিরণ।

m2k6m0d8

কেনার আগে প্রসাধনী পণ্যের উপাদান পরীক্ষা করা আবশ্যক

ফটো ক্রেডিট: iStock

হাইপারটেনশনে সতর্ক হন! ছ'টি উপায়ে নিজের উচ্চ রক্তচাপ কমান

প্যারাবেন রয়েছে এমন প্রসাধনী পণ্য এড়ানো প্রয়োজন। প্যারাবেন প্রিজারভেটিভস সাধারণত ফার্মাসিউটিক্যালস, ময়েশ্চারাইজার, শ্যাম্পু, প্রসাধনী এবং ডিওডোরেন্টে ব্যবহার করা হয়। বাটিলপ্যারাবেন, এথাইলপ্যারাবেন এবং মিথাইপ্যারাবেন সাধারণত বেশি ব্যবহৃত হয়। যদি আপনি প্যারাবেনহীন প্রসাধনী পণ্য ব্যবহার করেন তবে তা আপনার ত্বকের জন্য সত্যিই উপকারী হবে। ডাঃ কিরণ বলেন, “কিছু ধরণের ক্যান্সারের কারণের সঙ্গে প্যারাবেন যুক্ত বলেই পরিচিত এবং তাদের দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহার করতে করতে আপনার শরীরে ভীষণ ক্ষতি হতে পারে।”

একইভাবে, ফর্মালডিহাইড ডেরিয়েভেটিভগুলিও কার্সিওজেনিক হিসাবেই পাওয়া গিয়েছে। যে সমস্ত প্রসাধনী দ্রব্যে এই উপাদান রয়েছে তা এড়ানো উচিত। এই পণ্যগুলি ব্যবহার না করে প্রাকৃতিক এবং ঘরোয়া প্রতিকারগুলি দিয়েই আপনার ত্বকের যত্ন নিতে হবে। এই সব পণ্যগুলি দীর্ঘমেয়াদী পথে আপনার ত্বকের ক্ষতি করতে পারে।

মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------