হোম »  প্রেগন্যান্সি »  গর্ভাবস্থার 30 সপ্তাহে সন্তানের জন্ম দেওয়া উপকারি নাকি ক্ষতিকর?
পড়ুন | READ IN

গর্ভাবস্থার 30 সপ্তাহে সন্তানের জন্ম দেওয়া উপকারি নাকি ক্ষতিকর?

গবেষণায় দেখা গিয়েছিল, 39 সপ্তাহের মহিলাদের সি-সেকশনের প্রয়োজনীয়তা প্রসববেদনা ওঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করা মহিলাদের তুলনায় কম- প্রথম গ্রুপের 18.6 শতাংশ এবং পরের গ্রুপের 22.2 শতাংশ।

গর্ভাবস্থার 30 সপ্তাহে সন্তানের জন্ম দেওয়া উপকারি  নাকি ক্ষতিকর?

39 সপ্তাহে প্রসববেদনা ওঠা মহিলাদের সিজারিয়ান ডেলিভারির প্রয়োজন সাধারণত হয় না।

হাইলাইট

  1. গর্ভাবস্থায় সন্তানের জন্মের আগে নিয়মিত চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করা উচিত
  2. প্রায় 18.6% মহিলা সিজারিয়ান ডেলিভারি চান
  3. অক্সিটোসিনের ফলে বেশিরভাগ মহিলার প্রসবযন্ত্রণা শুরু হয়

স্বাস্থ্যকর মাতৃত্ব সম্বন্ধে প্রচলিত জ্ঞানের অভাব অনেক দিন ধরেই ছিল। 40 সপ্তাহ পূর্ণ হওয়ার আগে অনেকেই ওষুধের সাহায্যে প্রসব এগিয়ে আনা উচিত বলে বিবেচনা করতেন। ধারণাটি হল প্রসব বেদনা অনেক সময় জটিলতা বাড়িয়ে দিতে পারে, যার ফলে সিজারিয়ান ডেলিভারির সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে, কিন্তু তা মা ও শিশু উভয়কেই ঝুঁকির মুখে ঠেলে দিচ্ছে।

একটি নতুন গবেষণায় দেখা গেছে ধারণাটি ভুল।

নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অফ মেডিসিনে প্রকাশিত গবেষণাটির কেন্দ্রবিন্দু ছিল প্রথমবার মা হবেন এমন মহিলাদের সুস্বাস্থ্য। 41 টি হাসপাতালে ভর্তি 6 হাজারের বেশি মহিলাদের 2টি গ্রুপে ভাগ করে গবেষণাটি করা হয়। প্রায় অর্ধেক মহিলার মাতৃত্ব 39তম সপ্তাহ এবং বাকিদের আরও বেশি সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে দেওয়া হয়েছিল। 


অবাক করার মত ফলাফল হয়েছিল: 39 সপ্তাহের মহিলাদের সি-সেকশনের প্রয়োজনীয়তা প্রসববেদনা ওঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করা মহিলাদের তুলনায় কম - প্রথম গ্রুপের 18.6 শতাংশ এবং পরের গ্রুপের 22.2 শতাংশ। দুই গ্রুপের শিশুদের মধ্যেও মিল ছিল পরিসংখ্যানগত ভাবে দুই গ্রুপের শিশুদেরই ইনফেকশনের হার, শ্বাসতন্ত্রের সহযোগীতার প্রয়োজন, রক্তক্ষরণ, স্টিলবার্থ, শিশুমৃত্যুর হার এবং অন্যান্য জটিলতার হার সমান ছিল।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ চাইল্ড হেলথ এন্ড হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট (এনআইসিএইচডি) এর গর্ভাবস্থা ও পেরিন্যাটোলজি বিভাগের সঙ্গে ডক্টর উমা এম রেড্ডি এই গবেষণায় আর্থিক সাহায্য করেছেন।

ইউনাইটেড স্টেটসে বর্ধিত সি সেকশনের হার বর্তমানে চিন্তার বিষয় হয়ে উঠেছে। এটি যদিও নিরাপদ মনে করা হয় তবুও এর ফলে অনেক রক্তপাত ইনফেকশন এবং অন্যান্য জটিলতা দেখা যেতে পারে যা প্রাণহানিকরও হতে পারে। 

গবেষণাকারীরা একে গর্ভবতী মহিলাদের জন্য গেমচেঞ্জার বলেছেন।

কিন্তু আমেরিকান কলেজ অফ অবস্টেটরিশিআন এন্ড গাইনেকলজিস্টস এবং দ্য সোসাইটি ফর মেটারনাল-ফেটাল মেডিসিনের মতে এই রিভিউটি শুধুমাত্র অবস্টেট্রিক কেয়ার প্রদানকারীদের পক্ষে অফার করার মতো উপযোগী অপশন। 

টাফটস ইউনিভার্সিটি স্কুল অফ মেডিসিনের অবস্টেট্রিক্স ও গাইনেকলজি বিভাগের চেয়ারম্যান এরোল নোরওইটজ ও একই মন্তব্য প্রকাশ করেছেন।

ইউনিভার্সিটি অফ সাউথ ফ্লোরিডার মরসনি কলেজ অফ মেডিসিনের ডিন চার্লস লকউডের মতে এর কারণ হল অক্সিটোসিন ওষুধের ব্যবহার। প্রায়ই যদি এটি উচ্চমাত্রায় ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হয় তাহলে জরায়ু থেকে ভ্রূণে রক্ত পরিবহনের মাত্রা কমে যায়। অক্সিটোসিন বেশিদিন না দিলে ডাক্তাররা সি সেকশন করতে বাধ্য হবেন।

রেড্ডির মতে গর্ভবতী মহিলার কখন প্রসব করা উচিত-এর কোনো ঠিক উত্তর নেই: "কখন প্রসব করবেন তার সিদ্ধান্ত একান্ত ব্যক্তিগত"।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)
মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

 

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------