হোম »  লিভিং হেলথি »  World No Tobacco Day 2020: তামাক শিল্পের ভেতরের গল্প ফাঁস করতে চায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

World No Tobacco Day 2020: তামাক শিল্পের ভেতরের গল্প ফাঁস করতে চায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

World No Tobacco Day 2020: সিগারেট বা তামাক ছাড়া কঠিন মনে হলেও এটি সম্ভব। এ এক দীর্ঘ সফর যার জন্য অনুপ্রেরণার প্রয়োজন।

World No Tobacco Day 2020: তামাক শিল্পের ভেতরের গল্প ফাঁস করতে চায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

বিশ্ব তামাক বিরোধী দিবস বা World No Tobacco Day বিশ্বব্যাপী ৩১ মে পালিত হয়

বিশ্ব তামাক বিরোধী দিবস বা World No Tobacco Day বিশ্বব্যাপী ৩১ মে পালিত হয়। এই বিশেষ দিনটি তামাক সেবনের ক্ষতিকারক প্রভাব এবং ধূমপান ছাড়ার জরুরি প্রয়োজন সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করার চেষ্টা করে। তামাক ব্যবহার প্রতি বছর প্রচুর মৃত্যুর জন্য দায়ী। বর্তমান এবং ভবিষ্যত প্রজন্মকে তামাকের ব্যবহারের ধ্বংসাত্মক পরিণতি থেকে বাঁচানো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। World No Tobacco Day 2020-এর জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যুবসমাজকে তামাক শিল্পের যাবতীয় কারসাজি থেকে বাঁচাতে এবং তামাক ও নিকোটিন ব্যবহার থেকে সতর্ক করার দিকে মনোনিবেশ করেছে।

World No Tobacco Day 2020: থিম, তাত্পর্য এবং আরও বিশেষ তথ্য

বিশ্ব তামাক বিরোধী দিবস ২০২০-র থিম হল #টোবাকোএক্সপোজড। এই প্রচারের মাধ্যমে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই শিল্পগুলিতে নিযুক্ত কল্পিত কাহিনিগুলি প্রকাশ করার চেষ্টা করছে। এই পণ্যগুলি বিক্রি করার জন্য তামাক শিল্প যে সমস্ত কৌশলগুলি ব্যবহার করে তা যুবা সম্প্রদায়কে বোঝানোটাই এই থিমের মূল উদ্দেশ্য। পর্যাপ্ত তথ্য তামাকের ব্যবহারের নেতিবাচক প্রভাব এবং তার বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর প্রয়োজনীয়তা বুঝতে সহায়তা করে। ধূমপান শরীরের যে ক্ষতি করতে পারে সে সম্পর্কে বাবা মায়েরও উচিত বাচ্চাদের বোঝানো।


o3pnak88

ধূমপান দিনের প্রায় প্রতিটি অংশে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে! ছবি সৌজন্যে : আইস্টক

ধূমপান ছেড়ে দেওয়া প্রয়োজন


Promoted
Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com

ধূমপান একাধিক কারণে আপনার স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকারক। শুধু আপনার ফুসফুস নয়, এটি আপনার সামগ্রিক স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলতে পারে। অল্পবয়সীদের তামাকের ব্যবহার বন্ধ করতে উদ্বুদ্ধ করতে তাদের জন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করা দরকার। সিগারেট বা তামাক ছাড়া কঠিন মনে হলেও এটি সম্ভব। এ এক দীর্ঘ সফর যার জন্য অনুপ্রেরণার প্রয়োজন।

ধূমপানে আসক্তি থেকে বেরোতে মনকে বিভিন্ন কৌশলে বিষয়টির থেকে সরানোর চেষ্টা করুন। বেড়াতে যান, কারও সঙ্গে কথা বলুন, চিনিবিহীন চিউয়িং গাম চিবোন বা যখনই ধূমপানের তাগিদ অনুভব করবেন তখনই ফল খান। আপনার যদি ছাড়তে খুব অসুবিধা হয় তবে আপনার অবশ্যই চিকিত্সকের সাহায্য নিতে হবে।

মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------