হোম »  লিভিং হেলথি »  উষ্ণ খাবার না খাবারে উষ্ণতা! সুস্থ থাকতে কোনটি খুঁজবেন শীতে?

উষ্ণ খাবার না খাবারে উষ্ণতা! সুস্থ থাকতে কোনটি খুঁজবেন শীতে?

তেড়ে ঠাণ্ডা পড়ার আগে এমন কিছু থাক রোজের খাবারে যা একসঙ্গে শরীরের তাপ (Warm) ধরে রাখবে। আবার রোগের হাত থেকেও বাঁচাবে।

উষ্ণ খাবার না খাবারে উষ্ণতা! সুস্থ থাকতে কোনটি খুঁজবেন শীতে?

Winter superfoods: ঘি-মাখনে আপনি তাজা

হাইলাইট

  1. রাজমা শরীর গরম রাখে
  2. শীত মানেই বাজরা-মকাইয়ের রুটি
  3. সঙ্গে ঘি বা মাখন

শীত (Winte) আসছে আলতো পায়ে। তেড়ে ঠাণ্ডা পড়ার আগে এমন কিছু থাক রোজের খাবারে যা একসঙ্গে শরীরের তাপ (Warm) ধরে রাখবে। আবার রোগের হাত থেকেও বাঁচাবে। শীতে সুস্থ থাকতে বিশিষ্ট পুষ্টি বিশেষজ্ঞ রুজুতা দিয়েকরের পরামর্শ, মকাই, বাজরা, ঘি, মাখন, গুড় আর তিল খান ফি-দিন। কেন? জেনে নিন---


Superfoods for winter: শীত উপভোগের ৬ উপায়

'বিয়ের কনেটি যেন আঁকা ছবিটি', কী করে হবেন? জেনে নিন

১. বাজরার জোর

শীতে যাঁরা জয়েন্টের ব্যথায় কাবু তাঁরা বাজরার রুটি খেতে পারেন। বাজরার জোরে বহাল তবিয়তে কাটানো সম্ভব গোটা শীত। এর মধ্যে থাকা ম্যাগনেসিয়াম হৃদয় ভালো রাখে। এর মধ্যে থাকা পটাশিয়াম রক্তনালিতে ফ্যাট জমতে দেয় না। রক্ত সঞ্চালনে সাহায্য করে। ফাইবার সমৃদ্ধ বাজরা কোলেস্টেরলের মাত্রাও কমায়।

২. মোটি মকাই

পাঞ্জাবিরা মকাইয়ের রুটি এত খায় কেন জানেন? কারণ, এতে রয়েছে ভিটামিন এ, সি, কে, বিটা ক্যারোটিন এবং সেলেনিয়ামের পুষ্টি। যা থাইরয়েড কমাতে সাহায্য করে। এবং হরমোন ক্ষরণ স্বাভাবিক রাখে। এছাড়াও, ত্বক, চুল, হৃদয়, মস্তিষ্ক এবং হজমের জন্যেও ভাল। তাহলে, মকাইয়ের রোটি....ইয়া মোটি মোটি। আর সর্ষের শাক। হয়ে যাক?

jk6n0ikg

মকাই রোটি...ইয়া মোটি মোটি...সঙ্গে সর্ষে শাক
সৌজন্যে: আই স্টক

শীতকে কাবু করবেন? ডায়েটে থাক শিল্পা শেট্টির মাশরুম স্যুপ

৩. ঘি-গুড়ের সহবাস

শীতে গুড় বা গুড় এবং ঘি একসঙ্গে খেলে সাইনাস কমে। চট করে ঠাণ্ডা লাগে না। দুপুর বা রাতে খাওয়ার পরে এক চামচ গুড়ে সামান্য ঘি মিশিয়ে নিন। বজরা রুটির সঙ্গেও খেতে পারেন। গুড় আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। শরীরকে উষ্ণ রাখে। ফলে, সর্দি-কাশি হয় না চট করে। অন্যদিকে ঘি কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়। হজমশক্তি বাড়ায়।

৪. তড়কার তরিকায়

তড়কার ডাল শুধুই কিডনি স্টোন হওয়া আটকায় না, ত্বক এবং স্ক্যাল্পে আর্দ্রতা জুগিয়ে খুশকি কমায়। পাশাপাশি পুষ্ট করে শরীর। তড়কা ছাড়াও এই ডালের পরোটা খেতে বেশ।

৫. ঘি-মাখনের তোয়াজে

মাখন-ঘি মানেই ভিটামিন এ, ডি, ই এবং কে-র প্রচুর উপস্থিতি। যা শরীরের উষ্ণতা ধরে রাখে। পুষ্টি বাড়ায়। রোগের সঙ্গে লড়তে সাহায্য করে।

৬. তিল দান

তিল তেল চুল ভালো রাখে। ত্বককে অসময়ে বুড়িয়ে যেতে বাধা দেয়। তাই রুজুতার মতে চিকেন রান্নার সময় তিল তেল ব্যবহার করতে পারেন। তিলের নাড়ু, গজা নিয়মিত খেলে চোখ, ত্বক এবং হাড় ভালো থাকে।

(রুজুতা দিয়েকর)

সতর্কীকরণ: তথ্য অনুসরণের আগে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া বাঞ্ছনীয়।

মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

 

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------