হোম »  লিভিং হেলথি »  প্লাস্টিকের বাক্সে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে মুড়ে টিফিন? অজান্তেই সর্বনাশ করছেন সন্তানের

প্লাস্টিকের বাক্সে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে মুড়ে টিফিন? অজান্তেই সর্বনাশ করছেন সন্তানের

খাবার যেখানে রাখা হচ্ছে, বা যাতে মুড়ে রাখা হচ্ছে সেই পাত্র থেকে রাসায়নিক পদার্থ শুষে নেয় খাবার। বিশেষ করে গরম খাবার টিফিনে ভরে দিলে তা আরও ভয়ঙ্কর। 

প্লাস্টিকের বাক্সে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলে মুড়ে টিফিন? অজান্তেই সর্বনাশ করছেন সন্তানের

প্লাস্টিকের টিফিন বাক্স ফেলে স্টিলের বাক্স কিনুন, মসলিন কাপড় জোগাড় করুন খাবার মুড়ে রাখার জন্য

হাইলাইট

  1. মসলিন কাপড়ে মুড়ে রাখুন শিশুর খাবার
  2. স্টিলের টিফিন বাক্স ব্যবহার করুন
  3. এতে শিশুর বিকাশ ত্বরান্বিত হয়, হরমোনের ভারসাম্য ঠিক থাকে

বাচ্চাদের টিফিন নিয়ে নাজেহাল বাবা মায়েরা টিফিনে কী দেবেন সেটা নিয়ে চিন্তা করতে গিয়ে প্রায়ই একটা সাধারণ বিষয় এড়িয়ে যান। কোন পাত্রে ভরে, বা কীসে মুড়ে বাচ্চাকে খাবার দিচ্ছেন তার উপরেই কিন্তু নির্ভর করছে আপনার সন্তানের সুস্বাস্থ্য। অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল বা প্লাস্টিকের টিফিন বাক্সে করে বাচ্চাদের টিফিন দিলেই জানবেন সর্বনাশ হয়ে যাচ্ছে দীরে ধীরে। দীর্ঘদিন ধরে এই অভ্যাস চলার ফলে হরমোনের ভারসাম্যহীনতা দেখা দিতে পারে আপনার সন্তানের মধ্যে। এই সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে উদ্যোগী হয়েছেন সেলিব্রিটি পুষ্টিবিদ রুজুতা দ্বিওয়েকার। সম্প্রতি ফেসবুকে লাইভে তিনি জানিয়েছেন কীভাবে প্লাস্টিকের টিফিন বাক্স এবং অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল শিশুদের হরমোন ভারসাম্যহীনতা সৃষ্টি করতে পারে এবং প্রয়োজনীয় খনিজ পদার্থ থেকে শিশুদের বঞ্চিত করে।

অম্বল? বুক জ্বালা? বাড়িতে থাকা মাত্র ৪টি উপাদানই হতে পারে মুশকিল আসান

বিকল্প কী?


রুজুতার মতে, মসলিন কাপড়ে আচ্ছাদিত খাবার এবং স্টিলের টিফিন বাক্স বাচ্চাদের স্বাস্থ্যের জন্য দুর্দান্ত হতে পারে। প্লাস্টিকের বোতলের বিকল্প হিসেবে স্টিলের বোতল বা তামার বোতল ব্যবহার করা উচিত।

কীভাবে প্লাস্টিকের টিফিন বাক্স এবং অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল বাচ্চাদের ক্ষতি করে?

এটা জেনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে, খাবার যেখানে রাখা হচ্ছে, বা যাতে মুড়ে রাখা হচ্ছে সেই পাত্র থেকে রাসায়নিক পদার্থ শুষে নেয় খাবার। বিশেষ করে গরম খাবার টিফিনে ভরে দিলে তা আরও ভয়ঙ্কর। 

শিল্পার মতো ছিপছিপে চেহারা চান, দেখে নিন অভিনেত্রীর দেওয়া ১০টি টিপস

প্লাস্টিক খাবার মুড়ে রাখতে, বা খাবার প্যাকিং-এ অনেক সাহায্য করে ঠিকই কিন্তু আপনি কি জানেন যে প্লাস্টিক থেকে ক্ষতিকর রাসায়নিক জেনোস্ট্রেজেন (xenoestrogens) নিঃসৃত হয়। এই রাসায়নিক শরীরের এস্ট্রোজেন হরমোনের মতোই আচরণ করে। পুষ্টিবিদ রুজুতা জানাচ্ছেন, এই রাসয়নিক ধীরে ধীরে শিশুদের হরমোন ভারসাম্যকে ব্যাহত করতে পারে।

js0f3vag

প্লাস্টিকের টিফিন বাক্স খাবারকে বিষাক্ত করতে পারে

ছবি সৌজন্যে: iStock

অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলও খাদ্যে কিছুটা খারাপ প্রভাব ফেলে। যদিও দীর্ঘদিন ধরে রুটি, পরোটা এবং অন্যান্য খাবার মুড়ে রাখতে এই ফয়েল ব্যবহার করা হচ্ছে। এই অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল তৈরির কোম্পানিগুলি দাবি করে যে, তাঁদের তৈরি ফয়েল খাবার গরম রাখে। কিন্তু তাঁরা কখনই বলেন না কীভাবে এই ফয়েল খাবারে অ্যালুমিনিয়াম মিশিয়েও দেয়। অ্যালুমিনিয়াম মেশানো খাবার শরীরে গেলে, এটি জিঙ্ককে প্রতিস্থাপন করে,। জিঙ্ক ইনসুলিন কার্যকরী করার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ খনিজ। ইনসুলিনের অভাবে স্থূলতা, পিসিওডি, ফ্যাটি লিভার এবং ডায়াবেটিসের মতো রোগের সম্ভাবনা ত্বরান্বিত হয়।

কোন রঙের খাবারের কী উপকারিতা? জেনে নিন কাকে বলে রামধনু ডায়েট

প্লাস্টিক এবং অ্যালুমিনিয়াম ফলেয় ছাড়া যদি বাচ্চাকে অন্য পাত্রে অন্য কিছুতে মুড়ে খাবার দেন তবে পুষ্টি সমৃদ্ধ খাদ্য আপনার সন্তানের স্বাস্থ্যের উপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। রুজুতা জানিয়েছেন, এটি কোষ্ঠকাঠিন্য এবং অসুস্থতা কমাতে পারে, শিশুর বারেবারে কাঁদার অভ্যাসকেও কমাতে পারে, উপরন্তু চুল, ত্বক এবং নখ ভালো রাখে এবং বৃদ্ধি ও বিকাশ বেশ সুন্দর পথে এগোতে থাকে, হরমোন ভারসাম্যও বজায় থাকে।

সুতরাং, প্লাস্টিকের যা টিফিন বাক্স ছিল, তা ফেলে স্টিলের বাক্স কিনুন, সম্ভব হলে কিছু মসলিন কাপড় জোগাড় করুন খাবার মুড়ে রাখার জন্য।

মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

 

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------