হোম »  লিভিং হেলথি »  ছোট্টবেলার ইনফেকশনের প্রভাব পড়তে পারে স্কুলের রেজাল্টেও, বলছে বিশ্বজোড়া সমীক্ষা

ছোট্টবেলার ইনফেকশনের প্রভাব পড়তে পারে স্কুলের রেজাল্টেও, বলছে বিশ্বজোড়া সমীক্ষা

এই দুই ধরণের ইনফেকশনের উপর ভিত্তি করেই স্কুলের পরীক্ষার রেজাল্টে তার প্রভাব নিয়ে বিশ্লেষণ করেন গবেষকেরা।

ছোট্টবেলার ইনফেকশনের প্রভাব পড়তে পারে স্কুলের রেজাল্টেও, বলছে বিশ্বজোড়া সমীক্ষা

ইনফেকশনের কারণে হাসপাতালে ভর্তি হতে বাধ্য হয়েছে যে শিশুরা তাদের ক্ষেত্রে মস্তিষ্কের সঠিক বিকাশ বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে

হাইলাইট

  1. Hospitalisation for infections reduce the chances of passing 9th standard
  2. Less serious infections do not affect child's cognitive skills
  3. Study says poor school achievement could adversely affect health

ছোটোবেলায় বারে বারে হসপিটালের মুখ দেখতে হচ্ছে সন্তানকে? মাঝে মধ্যেই নানান ইনফেকশনে ভুগে হসপিটালে ভর্তি থাকতে হচ্ছে? সতর্ক হোন, পড়াশোনার রেজাল্টেও কিন্তু পড়তে পারে এর প্রভাব। ওয়াল্টারস ক্লুয়ার হেলথ আয়োজিত একটি সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে ছোটবেলায় যে শিশু যতবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে তার পড়াশোনার ক্ষেত্রে রেজাল্ট তত নিম্নগামী হয়েছে, তা সে ক্লাস নাইনের পরীক্ষাই হোক বা নিছক ক্লাস টেস্ট।

সারা বিশ্ব জুড়ে চালানো এই সমীক্ষায় বিশেষজ্ঞরা দুটি মূল বিষয়ের উপর জোর দিয়েছিলেন। ছোটবেলার বিভিন্ন ইনফেকশন গুলিকে তারা দু’ভাগে ভাগ করেন। মারাত্মক বা মাঝারি মানের এমন ইনফেকশন যার ফলে হসপিটালে ভর্তি হতে হয়। দুই, কম মারাত্মক ইনফেকশন যার কারণে নিয়মিত অ্যান্টিবায়োটিক খেয়ে যেতে হয়।

এই দুই ধরণের ইনফেকশনের উপর ভিত্তি করেই স্কুলের পরীক্ষার রেজাল্টে তার প্রভাব নিয়ে বিশ্লেষণ করেন গবেষকেরা। স্কুলের পরীক্ষার ক্ষত্রেও দু’ ধাপে তারা বিশ্লেষণ করেন। এক, ক্লাস নাইনের শেষ পরীক্ষা, দুই, নাইন পর্যন্ত হওয়া যাবতীয় পরীক্ষার গড় ফলাফল। দেখা যায়, যারা সেভাবে হসপিটালে ভর্তি হয়নি, অর্থাৎ কম মারাত্মক ইনফেকশন বা যেটা অ্যান্টিবায়োটিকেই সেরে গিয়েছে সেই বাচ্চাদের ক্ষেত্রে পরীক্ষার ফলাফলে তেমন খারাপ প্রভাব পড়েনি। কিন্তু বারেবারেই ইনফেকশনের কারণে হাসপাতালে ভর্তি হতে বাধ্য হয়েছে যে শিশুরা তাদের ক্ষেত্রে মস্তিষ্কের সঠিক বিকাশ বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে। যার ফল পড়েছে পড়াশোনার উপরেও। রুবেলা বা এনসেফালাইটিসে আক্রান্ত শিশুদের ক্ষেত্রে রোগ সেরে যাওয়ার পরেও দেখা যায় মস্তিষ্কের বেশ কিছুটা অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গিয়েছে বা তার কার্যকারীতা নষ্টই হয়ে গিয়েছে। দীর্ঘ সময় পার করেও তা থেকে বেরিয়ে আসার পথ থাকছে না।     



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)
মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

 

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------