হোম »  লিভিং হেলথি »  কোষ্ঠকাঠিন্যে জেরবার? সমাধান লুকিয়ে এক কাপ কফিতে!

কোষ্ঠকাঠিন্যে জেরবার? সমাধান লুকিয়ে এক কাপ কফিতে!

সমস্ত ম্যাজিক লুকিয়ে রয়েছে কফির মধ্যে থাকা ক্যাফিনে। এর প্রভাবেই অন্ত্রের মধ্যে লুকিয়ে থাকা সমস্ত ব্যাকটিরিয়া নষ্ট হয়ে যায়।

কোষ্ঠকাঠিন্যে জেরবার? সমাধান লুকিয়ে এক কাপ কফিতে!

কফি, জল ও ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার পেট পরিষ্কারে সাহায্য করে

ভাবতে পারছেন, কফির কাপে চুমুক দিলেই আপনার কোষ্ঠকাঠিন্য বা কন্সটিপেশন গায়েব! বিশ্বাস হচ্ছে না তো? হবে কী করে? কারণ, ভোরের আলো ফুটলেই যে আপনি আতঙ্কে বাথরুমের ধারপাশও মাড়াতে চান না। বাথরুমে গিয়ে পেট পরিষ্কার করা মানেই তো আপনা কাছে যুদ্ধের সমান। প্রায় আধঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বাথরুমে থাকার পর প্রায় প্রতিদিনই আপনি বের হন ঘেমে নেয়ে, পরাজিত সৈনিকের মতোই। হাতে গোনা কয়েকটি দিন ঠিকঠাক বাওয়েল ক্লিয়ার হয়। কিন্তু এতে যে আপনার পৈটিক স্বাস্থ্য ক্রমশ অবনতির দিকে এগোচ্ছে, মানেন তো! ভুরু কুঁচকে নিশ্চয়ই ভাবছেন, একটাও কি সহজ উপায় নেই? আছে তো! এক কাপ কফি। চায়ের বদলে রোজ কফির কাপে চুমুক দিলে রেহাই মিলবে রোজের এই সমস্যা থেকেও-- 

মেয়েরাই বেশি রিউম্যাটয়েড আর্থ্রাটিসে ভোগেন! সত্যি?

কীভাবে: চলতি বছরের ডাইজেস্টিভ ডিজিজ উইকে প্রকাশিত টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাবিজ্ঞান শাখার এক সমীক্ষা বলছে, সমস্ত ম্যাজিক লুকিয়ে রয়েছে কফির মধ্যে থাকা ক্যাফিনে। এর প্রভাবেই অন্ত্রের মধ্যে লুকিয়ে থাকা সমস্ত ব্যাকটিরিয়া নষ্ট হয়ে যায়। স্বাভাবিকভাবেই আপনার হজমশক্তি বাড়ে। আর খাবার দ্রুত হজম হওয়া মানেই পরের দিন বিনা কষ্টেই পেট সাফ। পাশাপাশি, পেটের মাসল বা পেশি নমনীয় করে সংকোচন-প্রসারণে যথেষ্ট সাহায্য করে। তবে এই সুবিধে কিন্তু ক্যাফিন ফ্রি কফিতেও পাওয়া যায়। অর্থাত, দিনের আলো ফুটলেই গরমাগরম এক কাপ কফি শুধুই আলস্য কাটাবে না, কনস্টিপেশন কমিয়ে দিনভর তাজা রাখবে আপনাকে।


কোষ্ঠকাঠিন্যের পঞ্চ বাণ: কফির কাপে চুমুক দেওয়া তো রইলই। সেইসঙ্গে মানতে হবে আরও পাঁচটি ধাপ----

১. সারাদিনে ঘুরেফিরে জল খান বারবার। গরমের দিনে বিশেষ করে জলের অভাব শরীর শুকিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি কোষ্ঠকাঠিন্যেরও কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই দিনে ৮-১০ গ্লাস জল পান মাস্ট। 

একা থাকেন? মানসিক স্বাস্থ্যের সমস্যা আপনার বাড়তে পারে সবথেকে বেশি

২. ফাইবার সমৃদ্ধ খাবারে পেট নরম থাকে। তাই রোজের ডায়েটে থাক মরশুমী ফল, সবজি, বাদাম, বিনস, দানাশস্যের মতো খাবার।

5rgjkj6o

৩. সঠিক ডায়েটের সঙ্গে রোজের ব্যায়ামটাও কিন্তু ভীষণ জরুরি। তাই রোজ সকালে এক কাপ কফির পরে নেমে পড়ুন ঘাম ঝরাতে। কোষ্ঠকাঠিন্য কাকে বলে, ভুলতে বাধ্য হবেন একদিন।

৪. টক দই, কিমচি, কেফির ও কম্বুচার মতো প্রো.-বায়োটিক খাবার কন্সটিপেশন কমাতে সিদ্ধহস্ত।

৫. নিয়মিত খান পেঁয়াজ, রসুন, কলা। ম্যাজিকের মতো ফল পাবেন।

মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------