হোম »  লিভিং হেলথি »  হাইপারটেনশনে সতর্ক হন! ছ’টি উপায়ে নিজের উচ্চ রক্তচাপ কমান

হাইপারটেনশনে সতর্ক হন! ছ’টি উপায়ে নিজের উচ্চ রক্তচাপ কমান

যখন রক্তচাপ দ্রুত এবং গুরুতরভাবে বেড়ে যায় হৃদস্পন্দনের ক্ষতি, স্ট্রোক, চোখের ক্ষতি এবং কিডনি ফাংশন হ্রাসের মতো নানা জটিলতারও সৃষ্টি হয়

হাইপারটেনশনে সতর্ক হন! ছ’টি উপায়ে নিজের উচ্চ রক্তচাপ কমান

উচ্চ রক্তচাপ নানা অঙ্গ প্রত্যঙ্গের কার্যকারিতা নষ্ট করে

হাইলাইট

  1. হাইপারটেন্সিভ সংকটে নাক দিয়ে রক্ত পড়তে পারে
  2. উৎকণ্ঠা ও উদ্বেগ বাড়তে পারে মারাত্মক পর্যায়ে
  3. সুস্থ খান, সুস্থ থাকুন

উচ্চ রক্তচাপ খুব সাধারণ সমস্যা হলেও জীবনের ক্ষেত্রে বিপজ্জনক অবস্থা নিয়ে আসতে পারে। উচ্চ রক্তচাপের প্রাথমিক উপসর্গের মধ্যে থাকে মাথা ঘোরা এবং পেট ব্যথা। এই প্রাথমিক উপসর্গ দেখা দিলেই আপনাকে প্রতিদিন রক্তচাপ পরীক্ষা করতে হবে। যখন রক্তচাপ দ্রুত এবং গুরুতরভাবে বেড়ে যায় হৃদস্পন্দনের ক্ষতি, স্ট্রোক, চোখের ক্ষতি এবং কিডনি ফাংশন হ্রাসের মতো নানা জটিলতারও সৃষ্টি হয়।

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন অনুসারে, উচ্চ রক্তচাপের সাধারণ লক্ষণগুলির মধ্যে গুরুতর উদ্বেগ, নাল দিয়ে রক্ত পড়া, গুরুতর মাথাব্যাথা এবং শ্বাস প্রশ্বাসের সমস্যা অন্তর্ভুক্ত। উচ্চ রক্তচাপ বা রক্তচাপের মাত্রা হঠাৎ বৃদ্ধি পায় এমন ব্যক্তির ক্ষেত্রে তাত্ক্ষণিক চিকিৎসা প্রয়োজন।

হাইপারসেন্সিটিভ সংকটের সাধারণত দুটি বিভাগ: জরুরী এবং অত্যধিক জরুরী। জরুরী উচ্চ রক্তচাপ সংকটে শরীরের অঙ্গের কোনও ক্ষতি হয় না। কিন্তু অত্যধিক জরুরী হাইপারটেনসিভ সংকট পরিস্থিতির ক্ষেত্রে শারীরিক অঙ্গগুলিরও ক্ষতি হয়।


জানতেন কি নারকেলের জল বাড়াতে পারে আপনার স্মৃতিশক্তি? আরও উপকারিতার কথা জানুন

কিছু সহজ কিন্তু কার্যকরী জীবনধারা সংশোধনের উপায়ের মধ্য দিয়ে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা যেতে পারে। স্বাস্থ্যকর খাদ্য এবং নিয়মিত ব্যায়াম রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখার চাবি। অ্যালকোহল গ্রহণ কমান এই মুহূর্তেই। এছাড়াও, উচ্চ রক্তচাপের ব্যক্তিদের খাবারে কম লবণ যোগ করা উচিত এবং প্রসেসড এবং প্যাকেজযুক্ত খাবার যাতে সোডিয়ামের মাত্রা বেশি তা এড়িয়ে চলতে হবে।

3fgc0ub8

নিয়মিত ব্যায়াম আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করতে পারে

ফটো ক্রেডিট: iStock

ওজন কমাতে স্বাস্থ্যকর স্ন্যাক্সে থাকুক প্রোটিন, ফ্যাট ও ফাইবার

আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখার অন্যান্য কার্যকরি উপায়

1. ওজন কমান: আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য ওজন কমাতেই হবে। নিজের কোমরের মাপ খেয়াল রাখুন। কোমর অঞ্চলের ওজন বেশি হলে তা রক্তচাপ বাড়ায়। পুরুষদের ক্ষেত্রে ৪০ ইঞ্চির বেশি কোমর হলে আর মহিলাদের ক্ষেত্রে ৩৫ ইঞ্চির বেশি হলে তা উচ্চ রক্তচাপ বাড়ায়।

2. নিয়মিত ব্যায়াম করুন: আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে ১৫০ মিনিটের ব্যায়াম অবশ্যই প্রয়োজন। হাঁটা, জগিং, সাইক্লিং, সাঁতার ও নাচের মতো অ্যারোবিক ব্যায়ামগুলি আপনার রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।

3. সুস্থ খাদ্য খান: আপনার খাদ্যে প্রচুর তাজা ফল এবং সবজি যোগ করুন। পটাসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার অন্তর্ভুক্ত করুন কারণ এটি রক্তচাপের উপর সোডিয়ামের প্রভাবকে হ্রাস করতে সহায়তা করে। পটাসিয়ামে সমৃদ্ধ খাবারগুলি হল কলা, অ্যাভোকাডো, পালং শাক, মাশরুম, শশা, ব্রোকলি, কমলালেবু এবং মিষ্টি আলু।

4. ধূমপান বন্ধ করুন: ধূমপান শেষ করার পরেও বেশ কিছু মিনিট ধূমপান আপনার রক্তচাপ বাড়ায়। আপনার শরীরের রক্তচাপ স্বাভাবিক মাত্রা পুনরুদ্ধার করতে ধূমপান ছাড়ুন।

5. ক্যাফিন ছাড়ুন: ক্যাফিন আপনার রক্তচাপ মাত্রা বাড়তে পারে। আপনার রক্তচাপ মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে আপনার ক্যাফিন জাতীয় খাবার খাওয়া সীমিত করুন।

6. কম চাপ নিন: চাপ উচ্চ রক্তচাপ মাত্রা বাড়ানোর অন্যতম প্রধান কারণ। স্ট্রেস বা মানসিক চাপের প্রতি আপনার মনোভাব পরিবর্তন করে কম চাপ নিন। যোগ এবং ধ্যানও চাপ হ্রাস করার ভাল উপায়।

স্বাস্থ্যের আরও খবর এখানে

মন্তব্য

স্বাস্থ্যের খবর সাথে সুস্থ থাকার জন্য অভিজ্ঞদের টিপস, ডায়েট পরিকল্পনা জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

 

................... বিজ্ঞাপন ...................

................... বিজ্ঞাপন ...................

-------------------------------- বিজ্ঞাপন -----------------------------------